No panels !

[smartslider2 slider="4"]

দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা!

দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা!

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

রাজধানীর দারুস সালাম থানাধীন ছোট দিয়াবাড়ির এলাকার একটি বাড়ি থেকে দুই সন্তানসহ এক মহিলার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত দুই শিশু হচ্ছে শামীমা ও আব্দুল্লাহ। আর তাদের মায়ের নাম আনিকা।

মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান পুলিশের মিরপুর বিভাগের উপ কমিশনার (ডিসি) মাসুদ আহমেদ।  স্থানীয়রা জানিয়েছেন, দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর তাদের মা আত্মহত্যা করেন।

দারুস সালাম থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) ফারুকুল আলম বাংলা বলেন, নিহতদের লাশ উদ্ধারের কাজ চলছে। দুই শিশুর মধ্যে একজনের বয়স তিন, অপরজনের বয়স পাঁচ। ধারণা করা হচ্ছে, দুই শিশুকে হত্যার পর তাদের মা আনিকা আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনার পিছনে অন্য কিছু আছে কিনা তা পরবর্তী জানা যাবে বলে জানান ফারুকুল।

দারুস সালাম জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) মামুনুর রশিদ জানান, বটি দিয়ে শিশুদের জবাই করা হয়েছে।  বেলা সাড়ে ৩টায় ২৯/১ ছোট দিয়াবাড়ির বাসায় পুলিশ দরজা ভেঙে ঢুকে দেখতে পায় ফ্যানের সঙ্গে আনিকা ঝুলছেন। পাশেই দুই শিশুর গলাকাটা মরদেহ পড়েছিল।

তিনি আরো জানান, আনিকার স্বামী মোহাম্মদ শামীম হোসেন। তিনি একটি সেলুনে কাজ করেন। সেলুনে যোগাযোগ করে জানা গেছে, তিনি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের সমাবেশে গেছেন। শামীম ফিরলে তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এমএস/এমএমআর/

 

দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা!

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

রাজধানীর দারুস সালাম থানাধীন ছোট দিয়াবাড়ির এলাকার একটি বাড়ি থেকে দুই সন্তানসহ এক মহিলার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত দুই শিশু হচ্ছে শামীমা ও আব্দুল্লাহ। আর তাদের মায়ের নাম আনিকা।

মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান পুলিশের মিরপুর বিভাগের উপ কমিশনার (ডিসি) মাসুদ আহমেদ।  স্থানীয়রা জানিয়েছেন, দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর তাদের মা আত্মহত্যা করেন।

দারুস সালাম থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) ফারুকুল আলম বাংলা বলেন, নিহতদের লাশ উদ্ধারের কাজ চলছে। দুই শিশুর মধ্যে একজনের বয়স তিন, অপরজনের বয়স পাঁচ। ধারণা করা হচ্ছে, দুই শিশুকে হত্যার পর তাদের মা আনিকা আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনার পিছনে অন্য কিছু আছে কিনা তা পরবর্তী জানা যাবে বলে জানান ফারুকুল।

দারুস সালাম জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) মামুনুর রশিদ জানান, বটি দিয়ে শিশুদের জবাই করা হয়েছে।  বেলা সাড়ে ৩টায় ২৯/১ ছোট দিয়াবাড়ির বাসায় পুলিশ দরজা ভেঙে ঢুকে দেখতে পায় ফ্যানের সঙ্গে আনিকা ঝুলছেন। পাশেই দুই শিশুর গলাকাটা মরদেহ পড়েছিল।

তিনি আরো জানান, আনিকার স্বামী মোহাম্মদ শামীম হোসেন। তিনি একটি সেলুনে কাজ করেন। সেলুনে যোগাযোগ করে জানা গেছে, তিনি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের সমাবেশে গেছেন। শামীম ফিরলে তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এমএস/এমএমআর/

 

 

দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা!

নিজস্ব প্রতিবেদক।।

রাজধানীর দারুস সালাম থানাধীন ছোট দিয়াবাড়ির এলাকার একটি বাড়ি থেকে দুই সন্তানসহ এক মহিলার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত দুই শিশু হচ্ছে শামীমা ও আব্দুল্লাহ। আর তাদের মায়ের নাম আনিকা।

মঙ্গলবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান পুলিশের মিরপুর বিভাগের উপ কমিশনার (ডিসি) মাসুদ আহমেদ।  স্থানীয়রা জানিয়েছেন, দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যার পর তাদের মা আত্মহত্যা করেন।

দারুস সালাম থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) ফারুকুল আলম বাংলা বলেন, নিহতদের লাশ উদ্ধারের কাজ চলছে। দুই শিশুর মধ্যে একজনের বয়স তিন, অপরজনের বয়স পাঁচ। ধারণা করা হচ্ছে, দুই শিশুকে হত্যার পর তাদের মা আনিকা আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনার পিছনে অন্য কিছু আছে কিনা তা পরবর্তী জানা যাবে বলে জানান ফারুকুল।

দারুস সালাম জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) মামুনুর রশিদ জানান, বটি দিয়ে শিশুদের জবাই করা হয়েছে।  বেলা সাড়ে ৩টায় ২৯/১ ছোট দিয়াবাড়ির বাসায় পুলিশ দরজা ভেঙে ঢুকে দেখতে পায় ফ্যানের সঙ্গে আনিকা ঝুলছেন। পাশেই দুই শিশুর গলাকাটা মরদেহ পড়েছিল।

তিনি আরো জানান, আনিকার স্বামী মোহাম্মদ শামীম হোসেন। তিনি একটি সেলুনে কাজ করেন। সেলুনে যোগাযোগ করে জানা গেছে, তিনি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের সমাবেশে গেছেন। শামীম ফিরলে তাকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এমএস/এমএমআর/

Hasina says investors responsible for running after stock market rumours

Prime minister Sheikh Hasina on Sunday inaugurated the countrywide ‘financial literacy programme’ for the stock market investors.

This is, reports BSS, the first of its kind in Bangladesh and the premier said her government would continue its allout support for development of the stock market.

“The present government would continue its allout support for the development of the stock market which would be a ‘dependable source’ of long-term funding in building a developed Bangladesh,” Hasina was quoted to have said.

She, however, pointed out that the individuals would have to take the responsibility should they invest in stock market, banking on rumours and speculations.

The country’s stock market crashed twice in 2010-11 and in 1996 and her Awami League was in office on both the occasions.

The prime minister on Sunday formally opened the financial literacy programme at a function at Bangabandhu International Conference Centre in the city in thes morning.

From the function, she also inaugurated the newly-constructed 10-storey office building of Bangladesh Securities and Exchange Commission (BSEC), the watchdog of the capital market, at Agargaon in the city.

Finance minister Abul Maal Abdul Muhith addressed the function as the special guest, while BSEC chairman M Khairul Hossain gave the welcome speech.

Pointing out that financial literacy is very important for proper investment of the savings money of the people, Sheikh Hasina said the people of the country sometime make investment whimsically.

“They lose everything by making whimsical investment, and financial literacy is very essential to prevent the people from it,” she said, adding that it’s necessary for the people to know how and where they would make investment.

The premier expressed her firm optimism that BSEC, Stock Exchanges and listed companies would build a strong stock market by ensuring transparency and accountability side by side with establishing good governance.

“I hope it would create a scope for massive investment and employment in service and infrastructure sectors and play an important role in national economy,” she said.

The BSEC has launched the countrywide Financial Literacy Programme for the stock market investors with the slogan “Careful Investment, Prosperous Future”.

Sheikh Hasina underscored the need for making conscious investment in the capital markets of the country and not making investment whimsically based on rumours only.

In this connection, the premier categorically mentioned that the investors whether they are big or small will have to invest in the stock markets by taking the risk of their investment.

She said that many investors can not analyse appropriately the financial statement and other informations and they become loser depending on rumours and assumption.

After losing everything, she said, they have a tendency to blame the government and the finance minister for their losses.

Following the introduction of financial literacy, the prime minister hoped that the investors would be benefitted and more dynamism would be infused into the capital market of the country due to presence of knowledge-based investor groups.

Besides, the investors would be able to make profit by making decisions considering their financial capability and probability of getting benefits, she said.

Terming economic development is the key driving force to eradicate poverty, the prime minister said her government has been continuing its allout efforts for flourishing the stock market, the most important pilar of the financial sector of the country.

Sheikh Hasina

 

Various steps have been taken to develop a stable, transparent and accountable capital market, she said, adding that the SEC has been made financially independent and legal provisions have been kept to ensure transparency and accountability of the officials.

Apart from these, she said, the government has also undertaken measures for proper training at home and abroad for the officials of the BSEC.

Describing various initiatives of the government to ensure good governance of the Stock Exchanges and listed companies, Sheikh Hasina said proper regulatory measures have been taken to identify manipulation and irregularities in the transaction in stock markets.

The government would also continue special incentive packages for protecting interests of small investors, she said, adding that BSEC (Public Issue) Rules, 2015 has been framed to bring transparency in the IPO process.

Sheikh Hasina said her government has been working to flourish industrial sectors and develop country’s infrastructure, create employments, uphold financial discipline and stability.

Stock market create opportunities of supplying long term capital for the industries to achieve economic prosperity of the country while the investors get opportunity to invest their small savings in the stock markets, she added.

Sheikh Hasina wished a very strong position of the stock market as the main source of long term funding in various sectors of the country including industrial and infrastructure sectors to expedite economic growth.

Pointing out a memorandum of understanding (MoU) signed between Securities and Exchange Board of India (SEBI) and BSEC, the premier said steps have been taken to introduce new instruments and increase efficiency on investigation, supervision and oversee process in light of the MoU.

Sheikh Hasina said stability has been restored in the capital market and confidence of local and foreign investors in the country’s capital market has been increased following such steps of the government.

“Bangladesh’s stock markets are now being recognised as a fast-growing and potential capital market,” she said.

Sheikh Hasina

The premier s

aid her government has been working relentlessly for flourishing industries and infrastructure development, generating employment and upholding financial discipline and stability.

She said the capital market supplies long-term investment to mills and factories for achieving economic prosperity of the country. Besides, the people get a scope for investing their savings in securities, by creating huge employment alongside flourishing the industries, she said.

Referring to her government’s initiatives for establishing 100 economic zones in the country, the prime minister said more than one crore people would be employed in various mills and factories to be set up in these economic zones.

Besides, she said, MoUs have also been signed with China, Japan and India on G2G basis to establish four special economic zones for boosting more local and foreign investments, she said.

Sheikh Hasina said currently a very good congenial and investment friendly atmosphere is prevailing in the country while the government has announced very attractive incentive packages for the developer and industrial units like tax rebate, duty free import and exports.

“That’s why, Bangladesh is now the most attractive destination of investment compared to other countries in South Asia,” she said.

Sheikh Hasina

While spelling out the government’s steps for development of the capital market, finance minister Muhith said the government would now put pressure on the multinational companies working in Bangladesh to invest in the capital markets of the country as the market has already got international recognition.

The finance minister expressed his firm optimism that the stock market of the country would stand on a solid foundation in the next two years of the tenure of the present government.

৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ পাকিস্তান

স্পোর্টস ডেস্ক।।

তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের সর্বশেষ টেস্টে ২২০ রানে হেরে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান। সিডনি টেস্টে ৪৬৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে পঞ্চম দিনে ২৪৪ রানে অলআউট হয়ে যায় মিসবাহ উল হকের দল।

এ নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় টানা চারটি টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশের হলো পাকিস্তান। অন্যদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সুবিধা করতে না পারলেও নিজেদের মাটিতে  অস্ট্রেলিয়া জয়ের ধারা বজায় রেখেছে।

Australia

পাকিস্তান চতুর্থ দিন শেষে ৫৫ রানে এক উইকেট হারিয়ে শেষ করলেও টিকে থাকতে পারেনি পঞ্চম দিনে তারা সুবিধা করতে পারেনি। প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরি হাঁকানো ইউনিস খান ৩৮ রানেই আউট হয়ে যান। এদিন ক্যারিয়ারের ১০ হাজার রানের মাইলফলক ছোঁয়ার অপেক্ষায় ছিলেন। তবে দ্রুতই আউট হয়ে যাওয়ায় সে মাইফলক ছোঁয়া হয়নি মিসবাহর।

পাকিস্তান দলের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান সরফরাজ আহমেদ সর্বোচ্চ ৭০ বলে ৭২ রান করে অপরাজিত থাকেন।

অস্ট্রেলিয়া দলের বাঁহাতি স্পিনার স্টিভ ওকেফে ও পেসার জস হেজেলহুড দুজনেই নিয়েছেন ৩ টি করে উইকেট।
ম্যান এব দ্য ম্যাচ পুরষ্কার জিতেছেন অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান ডেভিড ওয়ার্নার আর ম্যান অব দ্য সিরিজ জিতেছেন স্টিভেন স্মিথ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর- অস্ট্রেলিয়া: ৫৩৮/৮ ডিক্লে. ও ২৪১/২ ডিক্লে.
পাকিস্তান: ৩১৫ ও ২৪৪ (৮০.২)

 

Hera

 

স্পোর্টস ডেস্ক।।

তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের সর্বশেষ টেস্টে ২২০ রানে হেরে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান। সিডনি টেস্টে ৪৬৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে পঞ্চম দিনে ২৪৪ রানে অলআউট হয়ে যায় মিসবাহ উল হকের দল।

এ নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় টানা চারটি টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশের হলো পাকিস্তান। অন্যদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সুবিধা করতে না পারলেও নিজেদের মাটিতে  অস্ট্রেলিয়া জয়ের ধারা বজায় রেখেছে।

Australia

পাকিস্তান চতুর্থ দিন শেষে ৫৫ রানে এক উইকেট হারিয়ে শেষ করলেও টিকে থাকতে পারেনি পঞ্চম দিনে তারা সুবিধা করতে পারেনি। প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরি হাঁকানো ইউনিস খান ৩৮ রানেই আউট হয়ে যান। এদিন ক্যারিয়ারের ১০ হাজার রানের মাইলফলক ছোঁয়ার অপেক্ষায় ছিলেন। তবে দ্রুতই আউট হয়ে যাওয়ায় সে মাইফলক ছোঁয়া হয়নি মিসবাহর।

পাকিস্তান দলের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান সরফরাজ আহমেদ সর্বোচ্চ ৭০ বলে ৭২ রান করে অপরাজিত থাকেন।

অস্ট্রেলিয়া দলের বাঁহাতি স্পিনার স্টিভ ওকেফে ও পেসার জস হেজেলহুড দুজনেই নিয়েছেন ৩ টি করে উইকেট।
ম্যান এব দ্য ম্যাচ পুরষ্কার জিতেছেন অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান ডেভিড ওয়ার্নার আর ম্যান অব দ্য সিরিজ জিতেছেন স্টিভেন স্মিথ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর- অস্ট্রেলিয়া: ৫৩৮/৮ ডিক্লে. ও ২৪১/২ ডিক্লে.
পাকিস্তান: ৩১৫ ও ২৪৪ (৮০.২)

 

Khan

স্পোর্টস ডেস্ক।।

তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের সর্বশেষ টেস্টে ২২০ রানে হেরে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে পাকিস্তান। সিডনি টেস্টে ৪৬৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে পঞ্চম দিনে ২৪৪ রানে অলআউট হয়ে যায় মিসবাহ উল হকের দল।

এ নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় টানা চারটি টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশের হলো পাকিস্তান। অন্যদিকে, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সুবিধা করতে না পারলেও নিজেদের মাটিতে  অস্ট্রেলিয়া জয়ের ধারা বজায় রেখেছে।

Australia

পাকিস্তান চতুর্থ দিন শেষে ৫৫ রানে এক উইকেট হারিয়ে শেষ করলেও টিকে থাকতে পারেনি পঞ্চম দিনে তারা সুবিধা করতে পারেনি। প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরি হাঁকানো ইউনিস খান ৩৮ রানেই আউট হয়ে যান। এদিন ক্যারিয়ারের ১০ হাজার রানের মাইলফলক ছোঁয়ার অপেক্ষায় ছিলেন। তবে দ্রুতই আউট হয়ে যাওয়ায় সে মাইফলক ছোঁয়া হয়নি মিসবাহর।

পাকিস্তান দলের উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান সরফরাজ আহমেদ সর্বোচ্চ ৭০ বলে ৭২ রান করে অপরাজিত থাকেন।

অস্ট্রেলিয়া দলের বাঁহাতি স্পিনার স্টিভ ওকেফে ও পেসার জস হেজেলহুড দুজনেই নিয়েছেন ৩ টি করে উইকেট।
ম্যান এব দ্য ম্যাচ পুরষ্কার জিতেছেন অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান ডেভিড ওয়ার্নার আর ম্যান অব দ্য সিরিজ জিতেছেন স্টিভেন স্মিথ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর- অস্ট্রেলিয়া: ৫৩৮/৮ ডিক্লে. ও ২৪১/২ ডিক্লে.
পাকিস্তান: ৩১৫ ও ২৪৪ (৮০.২)

এমপি লিটন হত্যা: স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা গ্রেফতার

আততায়ীদের গুলিতে নিহত গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলায় সুন্দরগঞ্জ সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আহসান হাবিবকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

তিনি আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সুন্দরগঞ্জ শাখার সহসভাপতি। তবে তাকে কেন গ্রেপ্তার করা হয়েছে সেটা জানায়নি পুলিশ।

রোববার সকালে সুন্দরগঞ্জ পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ড এলাকার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি ওই ওয়ার্ডের আফতাব উদ্দিনের ছেলে।

সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিয়ার রহমান গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এমপি লিটন হত্যা মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

এই মামলায় তাকে গ্রেপ্তারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

গত ৩১ ডিসেম্বর সুন্দরগঞ্জের সর্বানন্দ ইউনিয়নের শাহাবাজ গ্রামের মাস্টারপাড়ায় নিজ বাসায় ঢুকে সংসদ সদস্য লিটনকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। শুরু থেকেই এই ঘটনার জন্য জামায়াত-শিবিরকে দায়ী করে আসছে আওয়ামী লীগ এবং লিটনের পরিবার।

এই ঘটনায় লিটনের ছোট বোন ফাহমিদা বুলবুল কাকলী অজ্ঞাতনামাদের বিরুদ্ধে মামলা করার পর গত আট দিনে আটক হয়েছেন মোট ৪৬ জন। এদের প্রায় সবাই জামায়াত-শিবিরের কর্মী। তবে এই প্রথম ক্ষমতাসীন দলের কোনো নেতাকে আটক করলো পুলিশ।

/জেবি/এমএমআর/

Freelife24 © 2016 W3HostBD Theme